জাফর আহমদ গিলমানের মত বিনিময় সভায় জনসমুদ্রে পরিণত

Sharing is caring!

এক্সপ্রেস ডেক্স:: আসন্ন কাদিপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে শুরু হয়ে গেছে চারিদিকে প্রচারণা.প্রায় সকল প্রতিদ্বন্দ্বী ছুটে চলেছেন ভোটারদের কাছে.চারিদিকে চলছে উঠান বৈঠক ও জনসভা.কেউ কেউ আবার গতবছর নির্বাচনের সময় দেওয়া কথা গুলো এই নির্বাচনকে সামনে রেখেই বাস্তবায়ন করছেন.

তবে প্রতিদ্বন্দ্বীদের মধ্যে সকলেরই শীর্ষে যার নাম রয়েছে তিনি হলেন- জাফর আহমদ গিলমান.কাদিপুরের ঐতিহ্যবাহী পরিবারের সন্তান.দি চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সাংগঠনিক সম্পাদক.এছাড়াও বড় পরিচয় হলো- কাদিপুর ইউনিয়নের প্রয়াত চেয়ারম্যান মোছাদ্দেক আহমদ নোমান এবং কুলাউড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি,কাদিপুর ইউনিয়নের সাবেক তিন তিন বারের সফল চেয়ারম্যান ও বর্তমান কুলাউড়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ কে এম সফি আহমদ সলমানের ছোট ভাই.

নির্বাচনকে সামনে রেখে জাফর আহমদ গিলমান এর গ্রামের বাড়িতে প্রথম নির্বাচনি মতবিনিময় সভা ডাকা হয়.এতে তিনি নির্বাচন করবেন কি করবেন না জনগন রায় দেওয়ার উদ্দেশ্যে ডাকলে,সেই সভাটি মতবিনিময় সভার বিপরীতে জনসমুদ্রে ভরপুর হয়ে যায়.হাজার হাজার মানুষ জাফর আহমদ গিলমানের ডাকে সাড়া দেয়.এবং জনগণের মতামত অনুযায়ী জাফর আহমদ গিলমান আগামী কাদিপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করবেন বলে মত প্রকাশ করেছেন.তবে কাদিপুর বাসীর শর্ত অনুযায়ী জাফর আহমদ গিলমানকে ফিরিয়ে আনতে হবে বিগত ৫বছরে হারিয়ে যাওয়া মান-ইজ্জত-ঐতিহ্য.যে ঐতিহ্য হারিয়ে গেছে বর্তমান চেয়ারম্যান এর জন্য.

জাফর আহমদ গিলমান তার বক্তব্যে বলেন,আমার ভাই মরহুম মোছাদ্দেক আহমেদ নোমান ও তিন তিন বারের সফল চেয়ারম্যান সফি আহমদ সলমান ইউনিয়ন পরিষদ বিগত দিনে যেভাবে চালিয়ে গেছেন আমিও তাদের অনুসরণ করেই ইউনিয়ন পরিষদ চালাবো এবং প্রান দিয়ে হলেও বিগত ৫ বছরে আমাদের ইউনিয়নের যে দুর্নাম হয়েছে তা মুছে ফেলবো.ফিরিয়ে আনবো আমাদের কাদিপুরের গৌরব আর ঐতিহ্য.আমি আপনাদেরই সন্তান-ভাই-বন্ধু.আমার ভাই ইউনিয়ন চেয়ারম্যান থাকাকালীন যেভাবে আপনারা রাতে দরজা খোলা রেখে ঘুমিয়েছেন সেভাবে আমিও প্রতিশ্রুতি দিলাম আপনারা ৬ নং কাদিপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আর আমি জাফর আহমদ গিলমান আপনাদের পাহারাদার.

এছাড়াও জাফর আহমদ গিলমান বলেন- তিনি দীর্ঘদিন ধরেই সততার সাথে কন্ট্রাক্টরী করে আসছেন,সেই অনুযায়ী কাদিপুর ইউনিয়নের মধ্য চুনঘর-উত্তর চুনঘর-হুসেনপুর-কাকিচার সহ আরও কয়েকটি রাস্তা পাকাকরণ করার জন্য সরকারের কাছে লিস্ট পাঠিয়েছেন.নির্বাচনের পুর্বেই রাস্তাগুলোর কাজ শুরু হবে বলে জানান.

ঐক্যবদ্ধ কাদিপুরবাসীও জাফর আহমদ গিলমানকে সমর্থন করে অনেকেই নিজেদের এলাকার কিছু সমস্যা জানান.উত্তরে জাফর আহমদ গিলমান বলেন,আমি যথাসম্ভব দ্রুত আপনাদের ঘরে ঘরে গিয়ে হলেও সমস্যা গুলো সমাধান করে দিবো।

১৩৬ Views

Sharing is caring!

error: Content is protected !!