কুলাউড়ায় পাহাড়ী জরাজীর্ণ রাস্তা সংস্কার করে যাতায়াত উপযোগী!

Sharing is caring!

স্টাফ রিপোর্ট ::

কুলাউড়া উপজেলার জয়চন্ডী ইউনিয়নের রংগীরকুল-পাঁচপীর জালাই রাস্তাটি দীর্ঘদিন থেকে জরাজীর্ণ অবস্থায় পরিত্যক্ত ছিলো। সংস্কারের অভাবে ইউনিয়নের ৬ ও ৭ নং ওয়ার্ডের ৩-৪ হাজার লোকজন ভোগান্তি নিয়ে অনেকদূর ঘুরিয়ে বিকল্পভাবে যাতায়াত করতেন। এতে করে সময় এবং অর্থ দুটোই ব্যয় হতো।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, দেশ স্বাধীনের পর তৎকালীন চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন এর আমলে এই রংগীরকুল গাজীরমহল হয়ে পাঁচপীর জালাই এলাকায় যাতায়াতের জন্য মলাঙ্গি নামক পাহাড়ি অঞ্চল দিয়ে প্রথম একটি রাস্তাটি নির্মাণ করা হয়। এরপর ১৯৯৬ সালে ফারুক আহমদ চেয়ারম্যান থাকাকালীন সময়ে পুনরায় রাস্তাটিতে সংস্কার কাজ করে যাতায়াত উপযোগী করা হয়। পরবর্তীতে আবার ২০১৪ সালে রাস্তাটিতে ৩য় দফায় সংস্কার কাজ করেন চেয়ারম্যান কমর উদ্দিন আহমদ কমরু। বিগত ৬ বছরে পাহাড়ি ঢল নেমে রাস্তাটির অনেক জায়গায় ভেঙে যায় এবং বন-জঙ্গলে একাকার হয়ে অনেকটা যাতায়াত অনুপযোগী হয়ে পড়ে।

জয়চন্ডী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কমর উদ্দিন আহমদ কমরু এবং ৭নং ওয়ার্ড সদস্য মো. মনু মিয়া জানান, রংগীরকুল গাজীরমহল হয়ে পাঁচপীর জালাই এলাকায় যাতায়াতের পাহাড়ি রাস্তাটি উচুঁ-নিচুঁ ঢাল এবং খানা-খন্দে ভরপুর থাকায় যাতায়াতে ভোগান্তিতে পড়েন চলাচলকারী লোকজন। সম্প্রতি ৬নং ওয়ার্ডের পাঁচপীর জালাই, বৈঠাং জালাই, গোগালিছাড়া এবং ৭নং ওয়ার্ডের রংগীরকুল, গাজীরমহল, দিলদারপুর, গিয়াসনগর আংশিক এলাকার লোকজন রাস্তাটি সংস্কার করে চলাচল উপযোগী করার জোর দাবী জানান।

মানুষের দাবীর প্রেক্ষিতে বর্তমান সংসদ সদস্য সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমদ মহোদয়ের আন্তরিকতায় রাস্তাটি সংস্কারে ৩ লক্ষ ৫৮ হাজার ১৩২ টাকা (টিআর) বরাদ্ধ দেয়া হয়। সেই বরাদ্ধ দিয়ে জরাজীর্ণ রাস্তাটি যাতায়াত উপযোগী করতে গিয়ে বেশি উচুঁ ঢাল কেটে কিছুটা সমতল করা হয়েছে এবং মলাঙ্গি নামক এলাকায় টিলার পাশের বন-জঙ্গলগুলো কেটে পরিস্কার করা হয়েছে। কিন্তু দু:খের বিষয়, নির্বাচনী প্রতিপক্ষের লোকজন টিলা কেটে সাবাড় করা হয়েছে মর্মে বিভিন্ন প্রগান্ডা ছড়িয়ে সাধারণ লোকজনকে বিভ্রান্ত করছেন।

ইউপি সদস্য মনু মিয়া আরও বলেন, বর্তমানে এই রাস্তাটি সংস্কার হওয়ার ফলে খুব সহজেই গাড়ি নিয়ে ৬নং ওয়ার্ডের পাঁচপীর জালাই, বৈঠাং জালাই ও গোগালিছাড়া যাতায়াত করা যাচ্ছে। তাছাড়া টিলার দুই পাশের বন-জঙ্গল পরিস্কার করায় পাহাড়ি ওই অঞ্চল দিয়ে নির্ভয়ে লোকজন যাতায়াত করতে পারছেন।

৫০ Views

Sharing is caring!

error: Content is protected !!